বাড়ি নির্মাণের সময় সতর্কতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

বাড়ি তৈরি করার আগে একজন মানুষ হিসাবে মানবিকতাবোধ থেকে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হয়। যার মধ্যে অন্যতম হলো বাড়িটি যেন সমাজ বা পরিবেশে নেতিবাচক প্রভাব না ফেলে। পাশাপাশি বাড়ি নির্মাণের আগে সবচেয়ে বেশি করে ভাবতে হয় এর অবকাঠামোগত দিক নিয়ে। দুইদিন পরপর তো আর বাড়ি করবেন না কেউ। ভূমিকম্পের মতো কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা কোন অগ্নিকান্ডে যদি শখের বাড়িটি ধ্বংস হয়ে যায় এবং সেটি যদি মানুষের প্রাণহানির কারণ হয়, তবে বিনিয়োগ ও জীবনের দুই-ই থেমে যায়। তাই বাড়িটি যেন হয় মজবুত, টেকসই, পরিবেশ বান্ধব সেইদিকে নজর রাখতে হবে। আর এই সব বিষয়গুলো নিশ্চিত করতে বাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কিছু সতর্কতার বিষয় বিবেচনায় আনা উচিত। নিম্নে তা আলোচনা করা হলো-

বাড়ি নির্মাণের সময় সতর্কতা

  • সুন্দর বাড়ি তৈরিতে যেমন একজন স্থপতি দরকার তেমনি মজবুত কাঠামো নির্মাণে সিভিল ইঞ্জিনিয়ার অথবা স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার প্রয়োজন। যিনি আপনার বাড়ির ভিত্তি (ফাউন্ডেশন), রড, সিমেন্ট এর সুষম ডিজাইন করে দিবেন, যা বাড়িকে ভূমিকম্প ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে সুরক্ষা দিবে। মোটে ও অবহেলা করবেন না। আজকের একটু ভুলে ভবিষ্যতে অনেক মূল্য দিতে হতে পারে। আপনার বিনিয়োগ এবং জীবন পড়বে ঝুঁকির মুখে। তাই বাড়ি নির্মাণের আগে স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার অথবা পরামর্শক প্রতিষ্ঠানকে নিয়োগ দিন।
  • বাড়ি তৈরির পূর্বে মাটি পরীক্ষা (সয়েল টেস্ট) করতে হবে। অব্যশই ভাল প্রতিষ্ঠান থেকে দক্ষ জিওটেক ইঞ্জিনিয়ার দ্বারা মূল্যায়ন করাতে হবে। অনেকের মধ্যে এই কাজটির মারাত্মক রকমের অবহেলা এবং টাকা বাঁচানোর প্রবণতা দেখা যায়। এমনটি কখনই করা যাবে না। মাটি পরীক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। মাটি পরীক্ষার পূর্বে অবশ্যই আপনার সিভিল ইঞ্জিনিয়ার অথবা স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারের সাথে কথা বলে নিতে হবে। কারণ, আপনার বাড়ির উচ্চতার সাথে কত গভীরতায় বোরিং করতে হবে তা উনি আপনাকে বলে দিবেন।
  • বাড়ি নির্মাণের সময় একজন সুপারভিশন ইঞ্জিনিয়ার রাখতে হবে, যাতে কাজের মান ভাল হয় এবং ড্রয়িং অনুযায়ী কাজটি সম্পূর্ণ হয়। কাজটাকে খুব নগণ্য মনে হলেও, এটা জরুরি। একটা উদাহরণ – আপনার বাড়ি নির্মাণ করার সময় কোনো কারনবশত একটা কলাম কিংবা বীম ঢালাইয়ের সময় আপনি উপস্থিত ছিলেন না বা কংক্রিট মিক্সারে পানি বেশি কমের কারণে একটা ভুল হলো যা আপনার কাছে খুব ছোট বিষয়। কিন্তু আপনি কি জানেন ওই বীম বা কলামটি ভালভাবে ঢালাই না হলেও বিল্ডিংয়ের নিজেস্ব ওজনে দাঁড়িয়ে থাকবে ? অনেক বিল্ডিং দাঁড়িয়ে আছেও। কিন্তু বড় ধরণের ঝাঁকুনি নেয়ার মত শক্তি তার নেই। ভূমিকম্পে ঠিক ওই অংশে প্রথম ভাঙ্গণ ধরবে। এটা হিসাব করে বলে দেওয়া যায়।
  • দক্ষ মিস্ত্রি নিন, যাদের আগে কাজের অভিজ্ঞতা আছে।
  • ‘সেফটি ফাস্ট’ কথাটা মোটেই অমূলক নয়। কর্মী এবং প্রতিবেশীর জান, মাল নিরাপদ রাখা আপনার দায়িত্ব যতক্ষণ পর্যন্ত আপনার স্থাপনার কাজ শেষ না হচ্ছে।
  • রড কেনার সময় শুধু দামি কোম্পানি দেখে নয় কিংবা টাকা বাঁচানোর জন্য সস্তা রড কিনবেন না। বরং দেখুন গুণগত মান। আপনি যে গ্রেড (৪০,৬০,৭৫) এর রড কিনেছেন, দোকানি কি সব রড ঠিক গ্রেড এবং একই কোম্পানির দিয়েছে কিনা এটা নিশ্চিত করুন। একবার মিলিয়ে নিন আপনার ডিজাইনে কোন গ্রেডের রডের কথা বলা আছে।
  • আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান সিমেন্ট। আমাদের দেশে তুলনামূলক সিমেন্টের মান ভাল তবুও কেনার পূর্বে টেস্ট রিপোর্ট দেখে নিতে পারেন। প্রয়োজনে আপনার স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারের সাথে পরামর্শ করে নিন। এটা কিনে আনার পর শুকনো জায়গায় রাখুন যাতে পানি না লাগে। কাজের পূর্বে সিমেন্টের ব্যাগ খুলে যদি দেখেন সিমেন্ট জমাট বেঁধে আছে তাহলে তা পরিবর্তন করুন। কোন ঝুঁকি নেবেন না। ঢালাই জাতীয় কাজে তো মোটেই না।
  • বালির দানাটা দেখে কিনুন। যাতে বালির এফ এম (FM – Fitness Modulus) ঠিক থাকে। কাজের পূর্বে চালনি দিয়ে চেলে নিন যাতে ময়লা না থাকে।
  • খোয়া (পাথর বা ইটের) সে আপনি যেটিই দিন, অবশ্যই পরিষ্কার এবং ভাল মানের খোয়া দেখে কিনুন। ব্যবহারের পূর্বে পানি দিয়ে ভিজিয়ে নিন।
  • ঢালাইয়ের কাজ শেষ হবার পর কিউরিং করুন। বিশেষ করে কলাম, বীম, ছাদ। প্রয়োজনে চটে মুড়িয়ে নিন, যেন পানি অনেকক্ষণ ধরে রাখতে পারে। এতে সিমেন্টের জমাট ভালভাবে ধরবে। পানি কম দিলে হালকা চুলের মত ফাটল দেখা দিবে এবং কংক্রিট তার সঠিক শক্তি পাবে না।
  • ভুমিকম্প নিয়ে আতঙ্কিত হবেন না, যা করার বাড়ি নির্মাণের আগে করুন। সঠিক ডিজাইন মেনে এবং সঠিক পরিমাণের রড, বালি, কংক্রিট ব্যবহারে বাড়ি করেন ঝুঁকিমুক্ত। তবে, প্রকৃতির উপর কিছু করার ক্ষমতা আপনার আমার কারোরই নেই।
  • এ সমস্ত সতর্কতা ছাড়াও আপনাকে নজর রাখতে হবে কলাম, বীম, গ্রেড বীম, ছাদের রড সময় রিং রড, সোজা রড, ল্যাপিং রড গুলো ঠিক করে দিয়েছে কিনা। বীম কলামের জয়েন্টে ইংরেজি “ল” এর মত রডগুলো দিয়েছে কিনা। অনেক সময় দেখা যায় কলামগুলো একবারে ঢালাই দিয়ে দিচ্ছে, এটা কখনই করা যাবে না। আপনার বাড়ির কলাম দূর্বল হলে কিন্তু কিছুতেই একে ধ্বসে পড়া থেকে আটকাতে পারবে না। প্রয়োজনে আপনার স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ারের সাথে পরামর্শ করে নিন। অনেক কষ্টের অর্থ বিনিয়োগ করে বড়ি বা যে কোন স্থাপনা করার পূর্বে এই বিষয় গুলো খেয়াল করবেন।

No comment yet, add your voice below!


Add a Comment

বাড়ি বানাতে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের জন্য একটি পরিপূর্ণ ওয়েব পোর্টাল- হোম বিল্ডার্স ক্লাব। একটি বাড়ি নির্মাণের পেছনে জড়িয়ে থাকে হাজারও গল্প। তবে বাড়ি তৈরি করতে গিয়ে পদে পদে নানা ধরণের প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হই আমরা। এর মূল কারণ হচ্ছে সাধারণ মানুষের মাঝে বাড়ি তৈরির নিয়ম নীতি সম্পর্কে ধারণার অভাব। সেই অভাব পূরণের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করেছে হোম বিল্ডার্স ক্লাব। আমাদের রয়েছে একদল দক্ষ বিশেষজ্ঞ প্যানেল। এখানে আপনি একটি বাড়ি তৈরির যাবতীয় তথ্য, পরামর্শ ও সাহায্য পাবেন।

© 2020 Home Builders Club. All Rights Reserved by Fresh Cement