মাটির ধরন বুঝে ফাউন্ডেশন: কীভাবে মাটির শক্তি বাড়াবেন?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

যেকোনো স্থাপনার নির্মাণে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ তার ফাউন্ডেশন। স্থাপনার সমস্ত ভর ভূমির গভীরে নিরাপদে ও সমানভাবে বণ্টনের কৌশল হলো ফাউন্ডেশন। নির্মাণ বড় হোক কিংবা ছোট, ফাউন্ডেশনের যথার্থতার উপর নির্ভর করে ভবনের আয়ু। আর ফাউন্ডেশন কেমন হবে তা নির্ভর করে স্থাপনার নকশা, ভৌগোলিক অবস্থান, মাটির প্রকৃতি ইত্যাদি বিষয়ের ওপর। আপনার বাড়ির নকশা এবং অন্যান্য বিষয় অনুযায়ী সঠিক ফাউন্ডেশন নির্ধারণ করা অন্য যেকোনো কাজের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। 

গভীরতার উপর ভিত্তি করে ফাউন্ডেশন দুই রকমের হতে পারে। ১. অগভীর ফাউন্ডেশন ও ২. গভীর ফাউন্ডেশন। এদের মধ্যেও আবার প্রকারভেদ আছে।

অগভীর ফাউন্ডেশন

  • Isolated ফুটিং
  • Combined ফুটিং
  • Strip ফাউন্ডেশন
  • MAT ফাউন্ডেশন

এর মধ্যে বাসস্থান নির্মাণে সিংগেল ফুটিংয়ের আধিক্য দেখা যায়। 

গভীর ফাউন্ডেশন

  • পাইল ফাউন্ডেশন
  • শ্যাফট ফাউন্ডেশন

উভয়ের কাজের পদ্ধতি প্রায় এক হলেও ২য় প্রকারটি সাধারণত বড় আকারের স্থাপনার ক্ষেত্রে করা হয়ে থাকে।

বাসস্থান নির্মাণের ক্ষেত্রে কোন ফাউন্ডেশন উপযুক্ত হবে তা বাছাইয়ের আগে কিছু বিষয় খেয়াল রাখা দরকার-

  • ভূমির উপরস্থ কাঠামোর সুরক্ষা
  • ভূ-গর্ভস্থ পানির সঠিক অপসারণ ও ব্যবহার
  • মাটি ও পানির উদ্বায়িতার মাঝে সঠিকভাবে বাধাদানকারীর ভূমিকা পালন করা

মাটির তারতম্য এবং ভৌগোলিক অবস্থানের ভিন্নতার উপর নির্ভর করে ফাউন্ডেশনে ব্যবহৃত উপাদান কী হবে। যেমন- 

  • পাথর
  • ইট
  • কংক্রিট ব্লক
  • কাঠ বা সংরক্ষণশীল কাঠ

বেশিরভাগ বাড়ির ক্ষেত্রে উত্থিত অংশ (রেইজড পেরিমিটার ফাউন্ডেশন) দেখা যায় যা প্রধানত মেঝে এবং দেয়ালকে সুরক্ষা দিয়ে থাকে। অনেক ক্ষেত্রেই তা একটি স্ল্যাবের উপর নির্মাণ করা হয় যা ভবনের জন্য বেইজ বা ভূমি হিসেবে কাজ করে। স্ল্যাবের পরিবর্তে কংক্রিট জেটির ব্যবহারও দেখা যায়। কখনো একই পদ্ধতিতে পুরো ভবন নির্মিত হয় আবার কখনো ভবনের বিভিন্ন অংশে বিভিন্ন ফাউন্ডেশন পদ্ধতির ব্যবহার হয়। 

স্ল্যাব ফাউন্ডেশন

সব ধরনের ফাউন্ডেশনের মধ্যে এটি সবচেয়ে কম খরচে এবং কম পরিশ্রমে করা সম্ভব বিধায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সবাই এটি অনুসরণ করে থাকে। বাকি সবের মতো এক্ষেত্রেও মাটির ২৪ ইঞ্চি গভীরে ফুটিং স্থাপন করা হয় এবং তার ওপর কমপক্ষে দুই ব্লক কংক্রিট দিয়ে সবধরনের পাইপ যোগ করা হয়, শেষে এক লেয়ার পাথরের মাধ্যমে কাজ শেষ হয়।

সহজ ব্যবস্থাপনা ও স্বল্প খরচের হলেও এক্ষেত্রে পরবর্তীতে মেরামতের প্রয়োজন হলে বেশ জটিলতার সৃষ্টি হয়, পাইপ সহ সবকিছু স্ল্যাবের তলদেশে থাকে বিধায়। তাছাড়া ঝড়-বৃষ্টি ও প্রতিকূল আবহাওয়ার বিরুদ্ধে এই ফাউন্ডেশনের সহনশীলতাও কম।

ক্রাউলস্পেস ফাউন্ডেশন

এক্ষেত্রে ফাউন্ডেশন মাটি থেকে সাধারণত কয়েক ফুট উপরে করা হয়। স্ল্যাব ফাউন্ডেশনের মতোই কয়েক লেয়ার কংক্রিট ব্লক দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে খরচ কিছুটা কম হলেও সময়ের দিক থেকে তা বেজমেন্ট ফাউন্ডেশনের মতোই দীর্ঘ।

সুবিধার বিষয় হলো এক্ষেত্রে তার, প্লাম্বিং এবং ডাক্টের সকল কাজ স্ল্যাব ফাউন্ডেশনের চেয়ে কম ঝামেলায় করা যায়। মেঝে কন্ডিশনিং থাকার দরুণ তাপমাত্রা সহনীয় থাকে। কিন্তু এতে পানিবদ্ধতার জন্য মেঝে ও দেয়ালে স্যাঁতস্যাঁতে ভাব থাকে এবং ছত্রাকের আক্রমণ লক্ষ্য করা যায়।

বেজমেন্ট ফাউন্ডেশন

শীতপ্রধান দেশে এই ফাউন্ডেশনের আধিক্য লক্ষ্য করা যায়। এক্ষেত্রে বেসমেন্ট আরেকটি লেভেল হিসেবেও গণ্য হতে পারে। এই ফাউন্ডেশনে আট ফুট বা তার চেয়েও বেশি গভীর গর্ত করা হয় এবং তা কংক্রিট স্ল্যাব দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়। প্রথমদিকে সিন্ডার ব্লকের মাধ্যমে দেয়াল তৈরি হতো বলে তা বৈরী আবহাওয়া ও স্যাঁতস্যাঁতে অবস্থায় কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়তো। বর্তমানে কংক্রিট ব্লকের মাধ্যমে এ সমস্যার সমাধান হয়েছে। বর্তমানে এ পদ্ধতিতে প্রতি স্কয়ার ফুটে সবচেয়ে কম খরচ পড়ে বলে এটি বহুলভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। 

ছোট ফুটপ্রিন্টের বাসভবনের ক্ষেত্রে বেশ সাশ্রয়ী আর মেরামত জনিত ঝক্কি-ঝামেলাও কম। কিন্তু ভূ-গর্ভস্থ পানির ব্যবস্থা ঠিকমতো না হলে এবং পাম্পে  ত্রুটি থাকলে পানিজনিত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

মাটির শক্তি বাড়াবেন কীভাবে ?

তবে ফাউন্ডেশন যেমনই হোক না কেন তার আগে মাটির ভারবহন ক্ষমতা এবং মাটির শক্তিবৃদ্ধি সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। কোনো এলাকার মাটিতে ত্রুটি দেখা গেলে সেখানে সাধারণত ফাউন্ডেশনের গভীরতা বৃদ্ধি, ভূ-গর্ভস্থ পানির সঠিক নিষ্কাশন, রাসায়নিক পদার্থ যেমন সিলিকার ব্যবহার কিংবা দুর্বল ও ত্রুটিযুক্ত মাটি অপসারণের ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়া পাইল ফাউন্ডেশনও এক্ষেত্রে মাটির শক্তি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। নরম মাটির তলদেশে শক্ত মাটি কিংবা পাথরের লেয়ারে ভার পরিবহনের জন্য এটি করা হয়ে থাকে।

বাসস্থানের জন্য কোন ফাউন্ডেশন ব্যবহার করা আবশ্যক তার কোনো বাধাধরা নিয়ম না থাকলেও বাজেট এবং বাড়ির নকশা অনুযায়ী সহজেই সঠিক পদ্ধতিতে ফাউন্ডেশন নির্মাণ সম্ভব।

No comment yet, add your voice below!


Add a Comment

বাড়ি বানাতে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের জন্য একটি পরিপূর্ণ ওয়েব পোর্টাল- হোম বিল্ডার্স ক্লাব। একটি বাড়ি নির্মাণের পেছনে জড়িয়ে থাকে হাজারও গল্প। তবে বাড়ি তৈরি করতে গিয়ে পদে পদে নানা ধরণের প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হই আমরা। এর মূল কারণ হচ্ছে সাধারণ মানুষের মাঝে বাড়ি তৈরির নিয়ম নীতি সম্পর্কে ধারণার অভাব। সেই অভাব পূরণের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করেছে হোম বিল্ডার্স ক্লাব। আমাদের রয়েছে একদল দক্ষ বিশেষজ্ঞ প্যানেল। এখানে আপনি একটি বাড়ি তৈরির যাবতীয় তথ্য, পরামর্শ ও সাহায্য পাবেন।

© 2020 Home Builders Club. All Rights Reserved by Fresh Cement