প্লাম্বিং পাইপের রকমফের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

প্রাচীনকালে, যখন মানুষ সবে প্লাম্বিং করতে শিখলো, ক্লে আর লেড (সীসা) পাইপই ছিল প্লাম্বিংয়ের জন্য একমাত্র বিকল্প। কিন্তু সময়ের বিবর্তনে, বাসাবাড়ি নির্মাণশিল্পে আধুনিকতার ছোঁয়া আসবার পর প্লাম্বিংয়ের পরিধি বেড়েছে। পানি সরবরাহ আর পয়োঃনিষ্কাশন ছাড়াও বাসাবাড়ির ফিটিং কিংবা উষ্ণ পানি পরিবহনের জন্য ভিন্ন পাইপের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিতে লাগলো। তাছাড়া সীসার পাইপের দীর্ঘকাল ব্যবহারের কারণে সৃষ্ট বিষাক্ততার ব্যাপারও মানুষকে ভাবিয়ে তোলে।

ফলে প্লাম্বিংয়ের জন্য এক-দুটি পাইপের ব্যবহার ছেড়ে নানারকম পাইপের ব্যবহার শুরু হয়। চলুন জেনে নেয়া যাক সর্বাধিক প্রচলিত প্লাম্বিং পাইপগুলো সম্পর্কে।

কপার (Copper) বা তামার পাইপ

প্লাম্বিংয়ের জন্য সর্বাধিক ব্যবহৃত পাইপগুলোর একটি হলো কপার পাইপ। সাধারণত দুই ধরনের কপার পাইপ প্লাম্বিংয়ে ব্যবহৃত হয়– কঠিন ও নমনীয়। পানি সরবরাহের জন্য কঠিন কপার পাইপের ব্যবহার আর সংযুক্তিতে নমনীয় কপারের রিভেট বা সংযুক্তি ব্যবহার করা হয়। তবে পানির কল তৈরিতেই নমনীয় কপারের ব্যবহার সর্বাধিক। উভয় প্রকার পাইপ ১৫, ১৮ আর ২২ মিলিমিটার ব্যাসে পাওয়া যায়। তবে বৃহৎ পরিসরে কাজের জন্য ১০৮ মিলিমিটার ব্যাসের কপার পাইপও হয়।

কপার পাইপের সবচেয়ে বড় সুবিধা এর দীর্ঘস্থায়িত্ব। ৫০ বছর পর্যন্ত টেকসই হতে পারে ক্ষয়নিরোধক এই পাইপগুলো। এদের ভেতর কোনোপ্রকার শেওলা বা ব্যাকটেরিয়া বাসা বাঁধতে পারে না, তাই অপেক্ষাকৃত নিরাপদ। পাশাপাশি এই পাইপ অত্যধিক তাপ সহনশীল।

অসুবিধা বলতে কপারের পাইপ তুলনামূলকভাবে ব্যয়বহুল। এছাড়াও পরিবেশবিদরা অতিরিক্ত পরিমাণে ভূগর্ভস্থ কপার উত্তোলনের বিরোধিতা করেন, কেননা এটি পরিবেশের জন্য ভীষণ ক্ষতিকর।

গ্যালভানাইজড (Galvanised) লোহার পাইপ

বাসাবাড়িতে ফিটিং, পয়োঃনিষ্কাশন কিংবা পানি সরবরাহের জন্য পেটা লোহার পাইপের তুলনায় গ্যালভানাইজড লোহার পাইপ অধিক জনপ্রিয় ছিল একসময়। এই পাইপে জিংকের আস্তরণ থাকায় এতে মরিচা ধরে না সহজে, সময়ের সাথে উজ্জ্বলতাও কমে যায় না।

তবে এই পাইপের সুবিধার চেয়ে অসুবিধাই যেন বেশি। প্রথমত, এর স্থায়িত্ব কম, ২০-২৫ বছর সাধারণত। সীসার গ্যালভানাইজেশন হলে সেই পাইপের পানিতে সীসার বিষাক্ততা ছড়ানোর সম্ভাবনা থাকে। কোনো কারণে জিংকের আস্তরণ চলে গেলে সহজেই মরিচা পড়ে। ভীষণ ভারি হওয়ায় নির্মাণকাজে এর ব্যবহারও কষ্টসাধ্য। আবার জিংকের সাথে পানিতে উপস্থিত খনিজ পদার্থের বিক্রিয়ায় ক্রমে গাদ জমা হয় পাইপের ভেতর, এবং একসময় তা সম্পূর্ণ পাইপও বন্ধ করে দিতে পারে।

পিভিসি (Polyvinyle Chloride) পাইপ

পিভিসি পাইপ এখনকার সময়ে প্লাম্বিংয়ের জন্য সর্বাধিক জনপ্রিয় নামগুলোর একটি। বাসাবাড়ির পানি সরবরাহ কিংবা ফিটিংয়ে সমানভাবে ব্যবহৃত হয় এই পাইপ। তুলনামূলক স্বল্পমূল্যের পিভিসি পাইপ চাপ সহনশীল, মরচে পড়ে না, তাই ক্ষয়ে যায় না। ওজনে কম এবং সহজে কাটা যায় বলে ব্যবহারও সহজ।

পিভিসির বড় শত্রু হলো তাপ। অধিক তাপে পিভিসি পাইপের আকার বিকৃতি ঘটতে পারে, এমনকি ফেটেও যায়। আবার আকারে বৈচিত্র্য না থাকায় জটিল নির্মাণকাজে এই পাইপ ব্যবহার করলে বারবার কাটা এবং জোড়া দেয়ার প্রয়োজন পড়ে।

সিপিভিসি (Chlorinated PVC) পাইপ

পিভিসি পাইপের সাথে পার্থক্য এর নাম থেকে অনুমান করা যায়। পিভিসি পাইপের সাথেই ক্লোরিন মিশ্রিত করে তৈরি করা হয় সিপিভিসি। কারণটাও অনুমেয়। অতিরিক্তি এই ক্লোরিন সিপিভিসি পাইপকে তাপ সহনশীল করে তোলে।

সিপিভিসি পাইপ প্রায় ২০০º সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপ সহনশীল, দামে কম, ক্ষয়কারী পদার্থ পরিবহনে সক্ষম, দীর্ঘস্থায়ী এবং চাপ সহনশীল। ঝামেলা বলতে ভঙ্গুরতা। ক্লোরাইড থাকায় এই পাইপ দীর্ঘক্ষণ সূর্যালোকে থাকলে ফেটে যেতে পারে। তাই এই পাইপ সাধারণত গৃহাভ্যন্তরে ব্যবহারের জন্য কাজে লাগান হয়।

ক্রস লিংক পলিইথিলিন (Cross Linked Polyethelyne) বা পেক্স পাইপ

পেক্স পাইপের বিশেষত্ব হলো এটি নমনীয় এবং বাঁকানো যায়। পিভিসির মতো এটিও একটি প্লাস্টিক পাইপ। তাছাড়া এই পাইপ কাটা এবং জোড়া লাগানো অত্যন্ত সহজ। রাবারের বার্ব ব্যবহার করে কিংবা অল্প আঁচে এক মুখ প্রসারিত করে দুটি পাইপকে সংযুক্ত করা যায়। নমনীয়তার পাশাপাশি তাপ সহনশীলতা এবং টেকসই হওয়াও পেক্স পাইপের গুণ। তবে ঝামেলা হলো এতে পানি দূষণের সম্ভাবনা থাকে। কিছু পেক্স পাইপে পানি সরবরাহ করলে তাতে গন্ধ হয়ে যায়।

সবচেয়ে জনপ্রিয় এই পাইপগুলো ছাড়াও আরো অনেক প্রকার প্লাম্বিং পাইপ রয়েছে। সেগুলো সম্পর্কেও সংক্ষেপে জেনে নেয়া যাক।

স্টেইনলেস স্টিল পাইপ

এগুলো দামে অধিক, মানেও উন্নত। অত্যধিক চাপ ও তাপ সহনশীল, ক্ষয়রোধী। তবে ক্ষয়কারক তরল পরিবহনযোগ্য নয়। দীর্ঘস্থায়ী এসব পাইপ কঠিন ও নমনীয় উভয় প্রকারের পাওয়া যায়।

পলিবিউটিলিন (Polybutylyne) পাইপ

এ পাইপগুলোকে একসময় পেটা লোহার পাইপের বিকল্প ভাবা হতো। পিভিসির মতো একপ্রকার প্লাস্টিকের পাইপ। পলিবিউটিলিন পাইপের বাজারে নতুন দিনের সূচনা করেছিল গত শতকের ‘৮০র দশকে। তবে ধীরে ধীরে এর ব্যবহার কমে আসে সংযুক্তির সমস্যার কারণে। দামে কম এই পাইপের সমস্যা একটাই, সংযোজন স্থানে সহজে লিক হয়, ফেটে যায়।

এবিএস পাইপ

অল্প দামে অধিক কর্মসম্পাদনের জন্য এবিএস পাইপ উপযোগী। এ পাইপ ক্ষয়কারী রাসায়নিক সহনশীল এবং মোটামুটি মাত্রায় তাপ সহনীয়। এবিএস পাইপ সাধারণ ড্রেনেজ ব্যবস্থায়, ছোট খাল বা নালায় ব্যবহার করা হয়।

ব্রাস (Brass) বা পিতলের পাইপ

পিতলের পাইপ যেকোনো দিক বিবেচনায় অন্য অনেক পাইপের তুলনায় অত্যন্ত কর্ম-উপযোগী। কারণ এ পাইপের চাপ ও তাপ সহনক্ষমতা বেশি, ক্ষয়রোধী, মরচে ধরে না, এবং দীর্ঘদিন টেকে। কিন্তু বড় পরিসরের কাজে এই পাইপ সাধারণত ব্যবহার হয় না বললেই চলে। কারণ এটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল। কিচেন সিংকে, পানির কলে বা বিভিন্ন সৌন্দর্যবর্ধক অভ্যন্তরীণ কাজে পিতলের পাইপ ব্যবহার করা হয়।

হাই ডেনসিটি পলিইথিলিন (High-Density Polyethylene) বা এইচডিপিই পাইপ

এইচডিপিই পাইপগুলো বাজারে পিভিসি শ্রেণীর পাইপের মধ্যে সবচেয়ে ভালো মানের। এ পাইপগুলো অনেক বেশি চাপ সহনশীল। যেকোনো ব্যবহারের জন্য প্রয়োজন অনুযায়ী এগুলো ৯০° কোণ পর্যন্ত বাঁকানো যায়। ৫০ বছর অনায়াসেই টিকে যেতে পারে এগুলো, যদি না চরম পরিস্থিতির শিকার হয়। দাম সহনশীল হওয়ায় এ পাইপের ব্যবহারও জনপ্রিয়, বিশেষ করে শিল্প-কারখানার পানি সরবরাহে।

No comment yet, add your voice below!


Add a Comment

বাড়ি বানাতে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের জন্য একটি পরিপূর্ণ ওয়েব পোর্টাল- হোম বিল্ডার্স ক্লাব। একটি বাড়ি নির্মাণের পেছনে জড়িয়ে থাকে হাজারও গল্প। তবে বাড়ি তৈরি করতে গিয়ে পদে পদে নানা ধরণের প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হই আমরা। এর মূল কারণ হচ্ছে সাধারণ মানুষের মাঝে বাড়ি তৈরির নিয়ম নীতি সম্পর্কে ধারণার অভাব। সেই অভাব পূরণের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু করেছে হোম বিল্ডার্স ক্লাব। আমাদের রয়েছে একদল দক্ষ বিশেষজ্ঞ প্যানেল। এখানে আপনি একটি বাড়ি তৈরির যাবতীয় তথ্য, পরামর্শ ও সাহায্য পাবেন।

© All Rights Reserved by Home Builders Club